×

দৈনিক দেশ সংযোগে সংবাদ প্রকাশ খুলনা ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালে নতুন বিচারক নিয়োগ

  • প্রকাশিত সময় : মঙ্গলবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২২
  • ৬০৭ পড়েছেন

খুলনা ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের মামলা জট কমাতে ও বিচার প্রার্থীদের হয়রানি লাঘবে অবশেষে বিচারক নিয়োগ দিয়েছে সরকার। সাতক্ষীরার যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ মো. ফারুক ইকবালকে খুলনা ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের বিচারক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। গত ১৪ নভেম্বর রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের বিচার শাখা-৩ এর সিনিয়র সহকারী সচিব মোর্শেদ আল মামুন ভুঁইয়া স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে এ আদেশ দেওয়া হয়। দৈনিক দেশ সংযোগ পত্রিকায় গত ৯ নভেম্বর এ খুলনা ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালে ১২ হাজার মামলার জট: দূর্ভোগে ২৪ লাখ মানুষ শিরোনামে খবর প্রকাশের পর সরকার বিচারক নিয়োগের উদ্যোগ নেয়।

প্রজ্ঞাপন সুত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিসের নির্দেশে যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ মো. ফারুক ইকবালকে বর্তমান কর্মস্থল সাতক্ষীরা থেকে বদলি করে পুনরাদেশ না দেওয়া পর্যন্ত ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের বিচারক পদে বদলি করা হয়। স্ইে সাথে আগামী ১৭ নভেম্বর বর্তমান কর্মস্থলের দায়িত্বভার অর্পণ করে অবিলম্বে বদলিকৃত কর্মস্থলে যোগদানের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

জেলা আইনজীবী সমিতি সূত্র জানায়, খুলনা ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের সাবেক বিচারক (বর্তমানে যুগ্ম জেলা জজ) নির্মলেন্দু দাশের সাথে আইনজীবী সমিতির নেতাদের বাকবিতান্ডের জেরে গত ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে খুলনা জেলা বারের আইনজীবীরা সাধারণ সভায় ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রম বর্জন করার ঘোষণা দেন। সেই সাথে বিচারক নির্মলেন্দু দাশকে (যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ) সরিয়ে অন্য কোন বিচারককে এ ট্রাইব্যুনালের দায়িত্ব দেওয়ারও দাবি জানান তারা। এ দাবির প্রেক্ষিতে কর্তৃপক্ষ বিচারক নির্মলেন্দু দাশকে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বদলি করে। এবং খুলনা জেলা বারের আইনজীবীদের ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রম বর্জনের প্রায় দেড় মাসেরও অধিক সময় পর নতুন বিচারককে এ আদালতের দায়িত্ব দেওয়া হলো।

নতুন বিচারককে ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের দায়িত্ব দেওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করে খুলনা জেলা জজ আদালতের জিপি এ্যাড. আইয়ুব আলী শেখ জানান, প্রায় দেড় মাস আদালতের কার্যক্রম বন্ধ থাকায় বিচার প্রার্থীরা বিচার পাওয়া থেকে বঞ্চিত ছিল। নতুন বিচারক নিয়োগ পেলে আদালতের বিচার কার্যক্রম আবারও শুরু হবে। আমরা প্রত্যাশা করছি নতুন বিচারক আদালতের নিয়ম অনুযায়ী স্বচছতা ও জবাব দিহিতার বিচার কার্যগুলো দ্রুততম সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করে বিচার প্রার্থীদের ভোগান্তি লাঘব করবে। ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনাল নিয়ে সাধারণ মানুষের যে প্রত্যাশা তা পূরণ করবে।

খুলনা ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইবুন্যালে নতুন বিচারক দ্বায়িত্ব নেওয়ার বিষয়ে খুলনা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. মো. সাইফুল ইসলাম জানান, আমরা চাই বিচারপ্রার্থীরা সঠিক বিচার পাক। দ্রুততম সময়ের মধ্যে মামলাগুলো নিষ্পত্তি হোক। তাহলে সাধারণ মানুষ ভোগান্তি থেকে মুক্তি পাবে। সরকার জনগণের সুবিধার জন্যই আইন তৈরি করেছেন। জনগণ যেন সঠিক বিচার পায় সেজন্য আদালত। আদালত তাদের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করবে এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

খুলনা ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালে নতুন বিচারক দায়িত্ব গ্রহন করছে এ বিষয়ে খুলনা নাগরিক সমাজের সদস্য সচিব এ্যাড. বাবুল হাওলাদার জানান, বিচারক মো. ফারুক ইকবাল এর আগেও খুলনার ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে দায়িত্ব পালন করেছেন। খুলনা বারের আইনজীবীদের দাবি ছিল ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের আগের বিচারক নির্মলেন্দু দাশকে অপসারণ করলে আমরা আইনজীবীরা আদালতে যাব। পাশাপাশি আইনজীবীদের সাধারণ সভায় ট্রাইব্যুনালের স্টাফদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি ছিল। বিচারকের পরিবর্তন হলেও আদালতের স্টাফদের কোন পরিবর্তন হয়নি। তবে আমরা আশা করছি নতুন বিচারক স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার মধ্য দিয়ে তার আদালতের কার্যক্রম পরিচালনা করবে। নিয়ম অনুযায়ী ট্রাইব্যুনালে মামলা এক বছরের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে হবে। কিন্তু দেখা যায় মামলার তারিখই নির্ধারিত হয় প্রায় এক বছর পরে। তাই এ বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়ে নতুন বিচারক তার দায়িত্ব পালন করবে বলে আশা করছেন এ নাগরিক নেতা।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: BD IT SEBA