×

দেড় যুগ পর খুলনা মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি

  • প্রকাশিত সময় : শনিবার, ৮ জুলাই, ২০২৩
  • ৭৪ পড়েছেন

দীর্ঘ প্রায় ১৮ বছর পর খুলনায় মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ পেল পূর্ণাঙ্গ কমিটি। বৃহস্পতিবার (৬ জুলাই) বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু এবং সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু খুলনা মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের এম. এ. নাসিমকে সভাপতি ও এস. এম. আসাদুজ্জামান রাসেলকে সাধারণ সম্পাদক করে ৯৯ সদস্যের এ পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন দেন। এর আগে ২০০২ সালে শেখ মোশাররফ হোসেনকে আহ্বায়ক এবং জেড এ মাহমুদ ডনকে সদস্য সচিব করে আহ্বায়ক কমিটির মধ্যে দিয়ে খুলনা মহানগরে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের যাত্রা শুরু হয়। পরবর্তীতে ২০০৫ সালের সম্মেলনের মাধ্যমে শেখ মোশাররফ হোসেন সভাপতি এবং জেড এ মাহমুদ ডন সাধারণ সম্পাদকসহ সর্বশেষ পূর্ণাঙ্গ কমিটি পেয়েছিলো মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ।

পরবর্তীতে কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক মহানগর আওয়ামী লীগের কমিটিতে অন্তর্ভূক্ত হওয়ায় ২০১৯ সালের অক্টোবরে মীর বরকত আলীকে আহ্বায়ক এবং এম এ নাসিমকে সদস্য সচিব করে সম্মেলন প্রস্তুত কমিটি করা হয়। এর দুই বছর পর ২০২১ সালের ৬ নভেম্বর নগরীর শহীদ হাদিস পার্কে ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এ সম্মেলনে এম এ নাসিমকে সভাপতি ও নগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আসাদুজ্জামান রাসেলকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। সম্মেলনের প্রায় ২ বছর পর পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন দিলো কেন্দ্রীয় কমিটি। কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন সহ-সভাপতি ড. মোঃ সাঈদুর রহমান, গোলাম রাব্বানী টিপু, মোঃ মাসুম বিল্লাহ, কাজী ইউসুফ আলী মন্টু, মোঃ মিজানুর রহমান জিয়া, ইসরাফুল জামান খান শাকিল, মীর রবিউল আলম, মোঃ রাজীব হোসাইন, শাহরিয়ার মাহমুদ রিয়াদ, বিজয় কুমার দে মিঠু, বায়জিদ হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ তাজমুল হক তাজু, এস. এম. আসিফ ইকবাল সবুজ, মোঃ ইখতিয়ার উদ্দিন মোল্লা, সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুর রহমান মারুফ, মোঃ হুমায়ুন শিকদার, লিটন মাহমুদ, প্রচার সম্পাদক রবীন্দ্রনাথ ধর, দপ্তর সম্পাদক মোঃ জিলহাজ্ব হাওলাদার, গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক মোঃ রিপনুজ্জামান রিপন, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মোজাহার হোসেন মোজো, আইন বিষয়ক সম্পাদক মোঃ হাবিবুর রহমান হাবিব, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক তাসকিন শরীফ, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আসাদুজ্জামান লিপন, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ ইমরান হাওলাদার, সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক গোলাম রাব্বানী মামুন, ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থাাপনা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ ফরহাদ হোসেন, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আসাদুল ইসলাম সানি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জি. মোঃ ইসমাইল সুমন, সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক শেখ মোস্তাফিজুর রহমান বাদল, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মোঃ শুকুর আসলাম শ্রাবণ, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মোসাঃ সুরভী আক্তার লাইজু, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোঃ রফিকুল ইসলাম কাজল, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ খান আজিম হিজল, ডিজিটাল আর্কাইভ ও পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক সাব্বির আহমেদ, প্রশিক্ষণ ও কর্মশালা বিষয়ক সম্পাদক সাইদুর রহমান মফিজ, মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান, শিশু ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ ইমরান হোসেন সাগর, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিষয়ক সম্পাদক খান মোসাদ্দেক হোসেন ইমন, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ পিয়াল, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম খান, প্রতিবন্ধী উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক মোঃ হাসান শেখ, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মোঃ জাকির হোসেন খোকন, উপ-প্রচার সম্পাদক মোঃ শাহরিয়ান নেওয়াজ রাব্বি, উপ-দপ্তর সম্পাদক মোঃ রবিউল ইসলাম প্রিন্স, উপ-গ্রন্থনা ও প্রকাশ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম অনিক, উপ-আইন বিষয়ক সম্পাদক আবিদ আল হাসান, উপ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদক হামিদা বেগম, উপ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক তানভির ইসলাম সাব্বির, সদস্য শরিফুল ইসলাম প্রিন্স, রেয়াজাদ হোসেন জন, মোঃ বুলবুল আহমেদ, মোঃ কামরুল ইসলাম, আলী আজগর আকন, মোঃ আশরাফুল আলম বাবু, মোঃ নাসির উদ্দিন, মোঃ আকরাম হোসেন, মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান কামাল, কাজী মোঃ জায়েনুর ইসলাম বাবু, গোলাম মাওলা টিংকু, শেখ রায়হান উদ্দিন, জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, শরিফুল ইসলাম অভি, মোঃ ইব্রাহিম মোড়ল, আতিকুর রহমান সোহাগ, নজরুল ইসলাম নবী, আহসান হাবিব রুবেল, মোহাম্মদ খালিদ হোসেন তুহিন, ফাহিদ হোসেন ঐশ্বর্য, মোঃ মাসুদ রানা, মোঃ হেলাল খান, মোঃ কবির হোসেন, মোঃ ইমরান গাজী, ফয়সাল হোসেন, মোঃ রাজু শেখ, শহিদুল ইসলাম, এ.কে.এম জান্নাতুল ফেরদৌস রুপম, ইঞ্জি. মোঃ হাফিজুর রহমান, মোঃ নাসির শেখ, মোঃ মারুফ হোসেন, শহিদুল ইসলাম রিপন, শামীম হাওলাদার, হাসান মোল্লা, নিয়াজ মোরশেদ সৈকত, নূর আলম সজিব, ইব্রাহিম হোসেন আরজু, আফরোজ আহসান, মোঃ সালাউদ্দিন মুন্সি, পিয়াস ভূঁইয়া, এম.এস আলম, এস.এম দিদার, রওশন আনির্জী অন্ত, মোঃ ফয়জুর রহমান আরাফাত, মোঃ আব্দুল রাজ্জাক গাজী, মোঃ শওকত হাওলাদার, মোঃ আরিফুল ইসলাম রাসেল, মোঃ আল-আমিন হাওলাদার, মোঃ সুমন হাওলাদার, তারিফুল ইসলাম তারিফ। এছাড়াও, ১৭ সদস্যের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্যরা হলেন গাজী মোফাজ্জেল হোসেন, মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, দেবদাশ বিশ্বাস, মনিরুল ইসলাম, রুম্মান আহমেদ, কোমল বিশ্বাস, মোঃ আবু হেনা, মোঃ হানিফ শেখ, তাপস রায় চৌধুরী, মোঃ আলী সোহাগ, মোঃ মারুফ চৌধুরী রিমন, মোঃ জাকারিয়া শেখ, রাশেদুজ্জামান রুবেল, নাসির মৃধা, মাসুম চৌধুরী, নুরুন নাহার খাতুন মুন্নী এবং মোঃ আল-আমিন।

পূর্ণাঙ্গ কমিটির বিষয়ে সাধারণ সম্পাদক এস এম রাসেল জানান, যারা দলে সক্রিয় রয়েছে এবং যাদের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ নেই তাদেরকে নিয়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটি করা হয়েছে। যারা কমিটিতে আছে তাদের নিয়ে আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করতে কাজ করা হবে। এবং স্বাধীনতা বিরোধী সকল অপশক্তিকে প্রতিহত করা হবে।

সভাপতি এম এ নাসিম বলেন, এ কমিটিতে কোন মাদক ব্যবসায়ী ও ভূমিদস্যু নেই। তবে এত বড় কমিটিতে ভবিষ্যতে যদি কারো বিরুদ্ধে কোন সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পাওয়া যায় তাহলে তার বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে এবং দল থেকে বহিষ্কার করা হবে।

মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির সাবেক আহ্বায়ক মীর বরকত আলী বলেন, ২০১৯ সালে আমাকে আহ্বায়ক করে এবং এম এ নাসিমকে সদস্য সচিব করে সম্মেলন প্রস্তুত কমিটি গঠন করা হয়। ২০২১ সালে ৬ নভেম্বর নগরীর শহীদ হাদিস পার্কে সফল সম্মেলনের মধ্য দিয়ে এম এ নাসিমকে সভাপতি ও এস এম আসাদুজ্জামান রাসেলকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। আজ তারা একটি ভালো কমিটি উপহার দিয়েছে। তবে পুরানোদের প্রাধান্য দিলে আরো ভালো হতো। আমি এ কমিটির সফলতা কামনা করছি।

মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর জেড এ মাহমুদ ডন জানান, কমিটিকে অভিনন্দন জানাই। নতুন পুরাতন মিলে ভালো কমিটি হয়েছে। আমি আশা করি এরা অনেক ভাল করবে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: BD IT SEBA