• E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১০:১০ অপরাহ্ন

×
সংবাদ শিরোনাম :
ঘূর্ণিঝড় রেমালে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সোহাগের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ: খুলনা মহানগর যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক সুজনের মায়ের ইন্তেকাল দেশের বিভিন্ন স্থানে ৫.৪ মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত রামপালে কলেজ পড়ুয়া মেয়েকে উত্যাক্তের প্রতিবাদ করায় প্রতিপক্ষের লাঠির আঘাতে মা মেয়ে আহত অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো “সবুজ পৃথিবীর সন্ধানে” প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান খুলনায় তিনদিনের কর্মসুচি – শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তম এঁর ৪৩তম শাহাদাতবার্ষিকী খুমেক হাসপাতালের সামনে থেকে ৯টি দেশি অস্ত্র উদ্ধার যশোরে মাদক ব্যবসায়ীর যাবজ্জীবন “ত্রান চাইনা,টেকসই বেড়িবাঁধ চাই”  সরকার জরুরী ভিত্তিতে বেঁড়িবাঁধ সংস্কার করে জলবন্দি মানুষদের মুক্ত করবে-ভুমিমন্ত্রী  ঘূর্নিঝড় রেমালে ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তায় সার্বক্ষণিক পাশে রয়েছেন সরকার-ত্রান প্রতিমন্ত্রী মোঃ মহিববুুর রহমান

সরকার পতনের কাউন্ট ডাউন শুরু হয়ে গেছে- রিজভী

  • Update Time : শুক্রবার, ১৪ জুলাই, ২০২৩
  • ৯২ Time View

শেখ হাসিনার পতনের কাউন্ট ডাউন শুরু হয়ে গেছে দাবি করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, এক দফার আন্দোলন চূড়ান্ত পর্যায়ে নিতে গণতন্ত্রমনা সকল দল কর্মসূচি দিয়েছে। নিশ্চিত হয়েছে উনি আর ক্ষমতায় থাকতে পারছেন না। শুক্রবার খুলনায় জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন আয়োজিত এক উপ বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। গুম-খুন, নির্যাতিত, অসহায় ও অস্বচ্ছল নেতাকর্মীদের পরিবারের সন্তানদের মাঝে এ উপ বৃত্তির অর্থ তুলে দেয়া হয়। রুহুল কবির রিজভী বলেন, কেউ যদি মিথ্যাচারিতা শিখতে চান তবে শুধুমাত্র শেখ হাসিনাকে অনুসরণ করলেই চলবে। উনি বিদেশিদের কাছে বলেছেন, ১৪ বছর ধরে তিনি দেশে অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন দিচ্ছেন। দিনের ভোট রাতে করে, জনগনের সব ধরনের অধিকার কেড়ে নিয়ে উনি মিথ্যাচারের মডেলে পরিণত হয়েছেন। আইএমএফ’র চাপে সরকার স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছে রিজার্ভ ২৩.৭ মিলিয়ন ডলার। এরা দূর্নীতির মাধ্যমে রিজার্ভ শেষ করেছে। অর্থনীতিকে ধ্বংস করেছে। গণতন্ত্র শেষ করেছে। ব্যাংকগুলো এলসি খোলা বন্ধ করে দিয়েছে। দেশনায়ক তারেক রহমানের নির্দেশে মাত্র ২/৩ দিনের প্রস্ততিতে নয়া পল্টনে বিএনপির সমাবেশে জনসমুদ্র সৃষ্টি হয়েছিল বলে উল্লেখ করেন রিজভী। অপরদিকে ৭১ সালের শান্তি কমিটির মতো একটি শান্তি সমাবেশ করেছেন ওবায়দুল কাদের সাহেবরা। যার শুরুতে ছিল চেয়ার ছোড়াছুড়ি। ওই সমাবেশে শেখ হাসিনার ফুপাতো ভাই উত্তর সিটির মেয়র তাপস বলেছেন, আগামী জানুয়ারীতে ঢাকা দখল করে তারা নির্বাচন করে দেখিয়ে দেবেন। এই বক্তব্যে তাদের মনোভাব প্রকাশ হয়ে পড়েছে। জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের জনকল্যাণমুখি কর্মকান্ড তুলে ধরে রিজভী বলেন, নির্যাতন নীপিড়নের শিকার রাজনৈতিক নেতাকর্মী ও তার পরিবারের পাশে দাঁড়াচ্ছে ফাউন্ডেশন। তাদের চিকিৎসা, শিক্ষা ও পুনর্বাসনে সহায়তা করা হচ্ছে। জিয়াউর রহমান বেঁচে থাকতে এ ধরনের গণমুখি কর্মকান্ডের মাধ্যমে রাজনীতিকে জনগনের কাছে নিয়ে গিয়েছিলেন। আজ যাদেরকে শিক্ষা বৃত্তি দেয়া হলো, তাদের লেখাপড়ার মানের দিকে সতর্ক নজর রাখার আহবান জানান রুহুল কবির রিজভী। বলেন, এই সরকার শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করেছে। এখন খাতায় কিছু না লিখলেও পাশ করা যায়। দুই লাইন লিখলে পাওয়া যায় জিপিএ পাঁচ। দেশ আজ চরম সংকট ও সমাজে আতংকের পরিবেশ বিরাজ করছে দাবি করে রিজভী বলেন, জনগনের কাছে দেশের মালিকানা থাকলে আজকের রাজনীতি অন্য রকম হতো। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের নির্দেশে সার্বিক কর্মকান্ড পরিচালিত হচ্ছে, যার মাধ্যমে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হবে বলে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। তাঁর বক্তব্যের আগে পুলিশের গুলি, নির্যাতন ও শাসক দল আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহত পাঁচজন নেতার পরিবারের সন্তানদের লেখাপড়ার ব্যয় নির্বাহের জন্য উপ বৃত্তির অর্থ তুলে দেয়া হয়। বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলেন সাতক্ষীরার বিএনপি নেতা ওলিউল্লাহর স্ত্রী মিসেস সালিমা, বাগেরহাটের স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা নূরে আলম ভূঁইয়া তানুর স্ত্রী কানিজ ফাতেমা, ঝিনাইদহের বিএনপি নেতা মিন্টু বিশ^াসের স্ত্রী মোসাম্মাৎ তাহমিনা আক্তার, ঝিনাইদহের যুবদল নেতা পলাশের বাবা গোলাম মোস্তফা এবং খুলনার ফুলতলায় শেখ মোঃ সাজ্জাদুজ্জামান জিকোর মাতা। জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের শিক্ষা উপ বৃত্তি প্রকল্প উপ কমিটির আহবায়ক ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের অধ্যাপক মোঃ লুৎফর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক ডাঃ ফরহাদ হালিম ডোনার, বিএনপির খুলনা বিভাগীয় ভারপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, বিএনপির শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক ড. এ বি এম ওবায়দুল ইসলাম, তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক রকিবুল ইসলাম বকুল, সহ প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক প্রফেসর ড. মোর্শেদ হাসান খান, ফাউন্ডেশনের রিহ্যাবিলিটেশন কমিটির চেয়ারম্যান ডাঃ শাহ মোঃ আমানুল্লাহ, খুলনা মহানগর বিএনপির আহবায়ক শফিকুল আলম মনা, জেলা আহবায়ক আমির এজাজ খান, মহানগর সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন ও জেলা সদস্য সচিব মনিরুল হাসান বাপ্পী। অনুভূমি ব্যক্ত করে বক্তব্য রাখেন শহীদ তানু ভূঁইয়ার বিধবা স্ত্রী কানিজ ফাতেমা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ প্রচার সম্পাদক কৃষিবীদ শামীমুর রহমান শামীম ও খুলনা বিশ^বিদ্যালয়ে অধ্যাপক নাজমুস সাদাত।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: BD IT SEBA