বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩৭ পূর্বাহ্ন

বাড়ি নির্মাণে শৃঙ্খলা ফেরাতে কেডিএ’র ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

দেশ প্রতিবেদক:
  • প্রকাশিত সময় : মঙ্গলবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৩৪৩ পড়েছেন

খুলনাকে সুশৃঙ্খল, আধুনিক ও পরিবেশ বান্ধব মহানগরী গড়তে বিল্ডিং কোড ও আইন মেনে ঘরবাড়ি নির্মাণে সচেতনা সৃষ্টির ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কেডিএ) এর চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম মিরাজুল ইসলাম। কেডিএর আওতাভুক্ত এলাকায় যেকোন ধরনের ভবন নির্মানের জমির মালিক ও প্রতিষ্ঠানগুলি যেন বিদ্যমান আইন সম্পর্কে অবগত হয়ে বাড়ি নির্মাণ করে সেজন্য সচেতনতা সৃষ্টিতে কাজ শুরু করেছে কেডিএ কর্তৃপক্ষ। নগরীতে বাড়ি নির্মানে উচ্ছুক ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠানের মালিক ও প্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় করে তাদেরকে বিল্ডিং কোড ও আইন মেনে বাড়ি করার জন্য তাগিদ দেন কেডিএ চেয়ারম্যান।

সোমবার সকাল ১১টায় কেডিএর কমিউনিটি সেন্টারে কেডিএ থেকে এনওসি এবং বিল্ডিংয়ের নকশার অনুমোদনপ্রাপ্ত ৭২জন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদেরকে নিয়ে এ সচেতনতামূলক মতবিনিময় সভায় তিনি এ তাগিদ দেন। কেডিএর কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় কেডিএ চেয়ারম্যান পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টশনের মাধ্যমে বিদ্যমান সরকারী ও কেডিএর আইন ও বিল্ডিং কোড অনুযায়ী করনীয় বিষয়ে নকশার অনুমোদনপ্রাপ্ত ব্যক্তিদেরকে বিস্তারিত অবহিত করেন। এ সময় তিনি জমির পরিমানের সাথে চারদিকে খোলা জায়গা, রাস্তা থেকে ভবনের দুরত্ব ও সরু রাস্তার জন্য কিভাবে ও কত পরিমান জমি ছাড় দিয়ে ভবন করতে হবে সে বিষয়ে আইন ও বিল্ডিং কোড নীতিমালা তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, নগরীতে কোন ধরনের ভবন নির্মান করতে হলে অবশ্যই ২০ ফুট রাস্তা অবশ্যই থাকতে হবে। ২০ ফুটের কম রাস্তা থাকলে সেখানে এনওসি এবং নকশার অনুমোদন দেয়া হবে না। এক্ষেত্রে ২০ ফুটের রাস্তা থাকলে রাস্তার সীমানা থেকে ৫ ফুট দুরত্বে, ১২ ফুট রাস্তা থাকলে রাস্তার সীমানা থেকে ৯ ফুট দুরত্বে এবং ৮ ফুট রাস্তা থাকলে ১১ ফুট দুরত্বে ভবন নির্মান করতে হবে। এর কোনরূপ ব্যাত্যয় ঘটানো যাবে না। একই সাথে নকশা বর্হিভূতভাবে ভবন নির্মান করলে তার জন্য আইনগত ব্যবস্থা, নির্মান বন্ধ করা, জরিমানা, নকশা বাতিল ও নির্মিত ভবন ভেঙ্গে দেয়াসহ কঠোর ব্যবস্থা গ্রহনের হুশিয়ারী দেন। তিনি নকশা বর্হিভুতভাবে ভবন নির্মান না করতে এবং নগরীকে ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য সুশৃঙ্খল ও পরিবেশ বান্ধব নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে সহযোগীতার আহবান জানান। মতবিনিময় শেষে ৭২জন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের হাতে ভবন নির্মানের অনুমোদিত নকশা হস্তান্তর করেন। কেডিএর মতবিনিময় সভায় সদস্য (এষ্টেট) আবুল কালাম আজাদ, সদস্য (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন নিয়ন্ত্রন) শবনম সাবা, সদস্য (উন্নয়ন) মো: জামাল উদ্দিন, কেডিএ সচিব মো: তবিবুর রহমান, পরিচালক (এষ্টেট) মো: বদিউজ্জামান, সিনিয়র বৈষয়িক অফিসার শামীম জেহাদ, অথরাইজড অফিসার জিএম মাসুদুর রহমান, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো: মুজিবুর রহমান, এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট সাজিয়া আফরিন, উপপরিচালক এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী, স্থপতি জিনিয়া হক পিংকি, হিসাবরক্ষন অফিসার এমএম হোসেন আলী, পরিকল্পনা কর্মকর্তা তানভীর আহমেদসহ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। মতবিনিময় সভায় জানানো হয়, কেডিএর আইন ও বিল্ডিং কোড মেনে সুশৃঙ্খল নগরী গড়তে ভবন নির্মানের বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই কেসিসির কাউন্সিলরবৃন্দ, ইমাম পরিষদসহ বিভিন্ন সংগঠনের সাথে মতবিনিময় করেছেন চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম. মিরাজুল ইসলাম।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এধরনের আরো সংবাদ

Categories

© All rights reserved © 2019 LatestNews
Hwowlljksf788wf-Iu