• E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০২:৫৬ পূর্বাহ্ন

×
সংবাদ শিরোনাম :
দেশের বিভিন্ন স্থানে ৫.৪ মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত রামপালে কলেজ পড়ুয়া মেয়েকে উত্যাক্তের প্রতিবাদ করায় প্রতিপক্ষের লাঠির আঘাতে মা মেয়ে আহত অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো “সবুজ পৃথিবীর সন্ধানে” প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান খুলনায় তিনদিনের কর্মসুচি – শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তম এঁর ৪৩তম শাহাদাতবার্ষিকী খুমেক হাসপাতালের সামনে থেকে ৯টি দেশি অস্ত্র উদ্ধার যশোরে মাদক ব্যবসায়ীর যাবজ্জীবন “ত্রান চাইনা,টেকসই বেড়িবাঁধ চাই”  সরকার জরুরী ভিত্তিতে বেঁড়িবাঁধ সংস্কার করে জলবন্দি মানুষদের মুক্ত করবে-ভুমিমন্ত্রী  ঘূর্নিঝড় রেমালে ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তায় সার্বক্ষণিক পাশে রয়েছেন সরকার-ত্রান প্রতিমন্ত্রী মোঃ মহিববুুর রহমান পাউবোর ব্যর্থতায় সহস্রাধিক মানুষের সেচ্ছাশ্রমে মেরামতের পর পরই ভেঙে গেল কয়রার বেঁড়িবাঁধ পরমানু বিজ্ঞানী ওয়াজেদ মিয়ার জন্মবার্ষিকী খুলনায় ‘দেশের অগ্রগতিতে বিজ্ঞান চর্চা’ শীর্ষক আলোচনা সভা

সোনাডাঙ্গা থানা পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ব্যবসায়ী আটক

  • প্রকাশিত সময় : শনিবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৭০ পড়েছেন

খুলনার সোনাডাঙ্গা থানা পুলিশ  ৪টি অস্ত্র ও ৩৫ রাউন্ড গুলিসহ অস্ত্র বিক্রেতা শরিফুল ইসলাম সোহাগকে আটক করেছে। নগরীর শেখপাড়া বাজার এলাকায় তার নিজের এলপিজি গ্যাসের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আছে। মূলত এই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের আড়ালে তিনি দীর্ঘদিন যাবত অবৈধ অস্ত্রের ব্যবসা করে আসছিলেন। বৃহস্পতিবার রাতে এই অভিযান চালায় কেএমপি পুলিশ।

আটক শরিফুল নগরীর ২৫/৩, বি কে রায় রোড বাইলেলের মো. শহিদুল ইসলাম সাগরের ছেলে। তিনি ২০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য। ওয়ার্ডটির গত কাউন্সিলে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করেছিলেন তিনি। ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মীর মো. লিটনের কাছে পরাজিত হন তিনি। বাবার পক্ষে এলাকায় প্রচারণায় অংশ নিয়েছিলেন শরিফুল ইসলাম সোহাগ।

অপরদিকে ব্যাপক অস্ত্র মজুদের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন খুলনা বিএনপি নেতারা। তারা এ ঘটনায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবি জানান।

অস্ত্র উদ্ধারের বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে শুক্রবার দুপুরে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. মোজাম্মেল হক সোনাডাঙ্গা থানায় প্রেস ব্রিফিংয়ের আয়োজন করেন। পুলিশ কমিশনার জানান, বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশ ডালমিল মোড় সংলগ্ন বি কে রায় রোড বাইলেনের বাড়ি থেকে শরিফুল ইসলাম সোহাগকে আটক করে। ওই বাড়ির একটি কক্ষের খাটের নিচ থেকে সোহাগ একটি রিভলবার, ৭ রাউন্ড গুলি ও দুটি কার্তুজ বের করে দেয়।

পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী শেখপাড়া এলাকায় তার মার্কেটের পূর্ব পাশের গোডাউন ঘরের ফাইল কেবিনেট থেকে একটি পিস্তল, পিস্তলের ৪টি ম্যাগজিন, পিস্তলের ২৩ রাউন্ড গুলি, ২ টি ওয়ান শুটারগান ও এসএলআর-এর ৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

তিনি বলেন, আটক সোহাগ অস্ত্র কোথা থেকে এনেছে, এর সঙ্গে কে কে জড়িত আছে, কোথায় সরবরাহ করার পরিকল্পনা ছিল সে সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ ঘটনায় সোনাডাঙ্গা থানায় অস্ত্র আইনে মামলা হয়েছে।

এদিকে হঠাৎ করে খুলনায় অবৈধ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের আনাগোনা বৃদ্ধিতে এবং শাসকদলের নেতার পুত্র অবৈধ একাধিক অস্ত্রসহ গ্রেফতারের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন খুলনা বিএনপি নেতৃবৃন্দ। তারা বলেছেন, বিএনপি যখন সরকারি বিরোধী যুগপৎ একদফা আন্দোলন করছে তখন এ ধরনের অস্ত্রেও মজুত সরকার বিরোধীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়ানো ও আইন-শৃঙ্খলার অবনতির ইঙ্গিত বহন করে বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করেছেন বিএনপি নেতৃবৃন্দ।

শুক্রবার (৮ সেপ্টেম্বর) প্রদত্ত বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন,  বি কে রায় রোড বাইলেনের বাসিন্দ অস্ত্র ব্যবসায়ী শরিফুল ইসলাম সোহাগকে  পুলিশ গ্রেপ্তার করেছেন। শরিফুল ইসলাম সোহাগ নগরীর ২০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা শহিদুল ইসলাম সাগরের পুত্র। শাসক দলের ছত্রছায়ায় শেখপাড়াস্থ পিতার এলপিজি গ্যাস ব্যবসার আড়ালে সে (সাগর) দীর্ঘদিন যাবত এ ধরণের অবৈধ অস্ত্রের ব্যবসা করছিলেন বলে জানা গেছে।

অনতিবিলম্বে গ্রেফতারকৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ করত: উদ্ধারকৃত অস্ত্র তিনি কোথা থেকে এনেছে এবং এর পিছনে কারা জড়িত তার রহস্য উদঘাটনের জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি দাবি জানিয়েছেন। একইসাথে অস্ত্র কোথায় সরবরাহ করার পরিকল্পনা ছিলো এবং এর পেছনে জড়িত কারা, সে সংক্রান্ত তথ্য উদঘাটন করে নগরবাসিকে অবহিত করার আহবান জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।

বিবৃতিদাতারা হলেন, বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক রকিবুল ইসলাম বকুল, তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, মহানগর বিএনপির আহবায়ক এড. শফিকুল আলম মনা, জেলা বিএনপির আহবায়ক আমীর এজাজ খান, মহানগর সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন ও জেলা বিএনপির সদস্য সচিব মনিরুল হাসান বাপ্পি প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এধরনের আরো সংবাদ

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: BD IT SEBA