• E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৩:২০ পূর্বাহ্ন

×
সংবাদ শিরোনাম :
দেশের বিভিন্ন স্থানে ৫.৪ মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত রামপালে কলেজ পড়ুয়া মেয়েকে উত্যাক্তের প্রতিবাদ করায় প্রতিপক্ষের লাঠির আঘাতে মা মেয়ে আহত অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো “সবুজ পৃথিবীর সন্ধানে” প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান খুলনায় তিনদিনের কর্মসুচি – শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তম এঁর ৪৩তম শাহাদাতবার্ষিকী খুমেক হাসপাতালের সামনে থেকে ৯টি দেশি অস্ত্র উদ্ধার যশোরে মাদক ব্যবসায়ীর যাবজ্জীবন “ত্রান চাইনা,টেকসই বেড়িবাঁধ চাই”  সরকার জরুরী ভিত্তিতে বেঁড়িবাঁধ সংস্কার করে জলবন্দি মানুষদের মুক্ত করবে-ভুমিমন্ত্রী  ঘূর্নিঝড় রেমালে ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তায় সার্বক্ষণিক পাশে রয়েছেন সরকার-ত্রান প্রতিমন্ত্রী মোঃ মহিববুুর রহমান পাউবোর ব্যর্থতায় সহস্রাধিক মানুষের সেচ্ছাশ্রমে মেরামতের পর পরই ভেঙে গেল কয়রার বেঁড়িবাঁধ পরমানু বিজ্ঞানী ওয়াজেদ মিয়ার জন্মবার্ষিকী খুলনায় ‘দেশের অগ্রগতিতে বিজ্ঞান চর্চা’ শীর্ষক আলোচনা সভা

চোরাচালানকারীর কাছ থেকে সোনা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেফতার তিন পুলিশ সদস্য

  • প্রকাশিত সময় : রবিবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ১৭৫ পড়েছেন

চোরাচালানকারীর কাছ থেকে সোনা ছিনতাইয়ের ঘটনায় খুলনার লবণচরা থানার তিন পুলিশ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। একই সঙ্গে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে ‘পাচারকারীকে’ও। শুক্রবার রাতে এসআই মোকলুকুর রহমান বাদী হয়ে মামলা করার পর তাদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে খুলনা মহানগর পুলিশের (কেএমপি) লবণচরা থানার ওসি মো. হাফিজুর রহমান জানান। গ্রেপ্তাররা হলেন— খুলনার খালিশপুর এলাকার বাসিন্দা ব্যাসদেব দে, লবণচরা থানার এসআই মোস্তফা জামান, এএসআই আহসান হাবীব ও কনস্টেবল মুরাদ। মামলার বরাতে পুলিশ জানায়, ব্যাসদেব দে একজন পেশাদার সোনা পাচারকারী। শুক্রবার দুপুরে তিনি ছয়টি সোনার বার ভারতে পাচারের জন্য টুঙ্গিপাড়া পরিবহনের একটি বাসে করে সাতক্ষীরায় যাচ্ছিলেন। বাসটি খুলনার সাচিবুনিয়া মোড়ে থামিয়ে তল্লাশি চালান তিন পুলিশ সদস্য। এ সময় ব্যাসদেব দে বাস থেকে নেমে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ সদস্যরা তাকে ধরেন। পরে তার কাছে থাকা ছয়টি সোনার বারের মধ্যে তিনটি ছিনিয়ে নেন তারা। বাকি তিনটি তাকে দিয়ে মোটরসাইকেলে বিভিন্ন স্থানে ঘুরিয়ে ছেড়ে দেন। তিনটি সোনার বারের মূল্য প্রায় ৩০ লাখ টাকা। মামলায় আরও বলা হয়, বিষয়টি নিয়ে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করেন ব্যাসদেব। পরে সন্ধ্যায় ওই তিন পুলিশ সদস্যকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গ্রেপ্তার করা হয়। লবণচরা থানার ওসি হাফিজুর রহমান বলেন, পাচারকারীকে বিশেষ ক্ষমতা আইনে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আর তিন পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে পেনাল কোডের ৩৯২ ধারায় মামলা হয়েছে। তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এধরনের আরো সংবাদ

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: BD IT SEBA