×

খুলনা নগরীতে প্রতিপক্ষের হামলায় সন্ত্রাসী রানা খুন

  • প্রকাশিত সময় : বুধবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ১৬২ পড়েছেন

গ্রুপিং,মাদক সিন্ডিকেটে প্রভাব বিস্তার এবং অর্থের ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে প্রতিপক্ষ বাহিনীর হাতে সন্ত্রাসী রানা খুন হয়েছে। নিহতের নাম সাদিকুর রোহান রানা ওরফে বিহারী রানা (৩০)। মঙ্গলবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে নগরীর ময়লাপোতা মোড়ের আহছানউল্লাহ কলেজের সামনে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এসময়ে পলাশ (৩৫) নামের অপর যুবক পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়। নগরীর সোনাডাঙ্গা মডেল থানার পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) আমিরুল ইসলাম হত্যাকাণ্ডের সত্যতা নিশ্চিত করেন। নিহত বিহারি রানা নগরীর ফেরিঘাট দেবেন বীবু রোড এলাকার শেখ মোহাম্মদ ইসলামের ছেলে। তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে। তার বিরুদ্ধে মাদক ও অস্ত্র ব্যবসার একাধিক অভিযোগ রয়েছে বলে পুলিশ জানায়। এলাকা সূত্রে জানা যায়, নগরীতে সাজাপ্রাপ্ত পালাতক এক আসামীর নেতৃত্বাধীন দুই সন্ত্রাসী কেডিএ এভিনিউ—এ আহসান উল্লাহ কলেজের সামনে রানা কে প্রকাশ্যে গুলি করে পালিয়ে যায়। সূত্র আরও জানায় গত ৪ দিন আগে মাদক ও অস্ত্র ব্যবসার অর্থ ভাগাভাগি নিয়ে পলাতক আসামীর গ্রুপের সাথে বিহারী রানার গন্ডগোল হয় এবং এক পর্যায়ে তাদের হত্যার হুমকি দেয় বিহারী রানা। বিষয়টি পলাতক আসামী অপমানবোধ করাতেই এই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে বলে সূত্র জানায়। অন্যদিকে মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে আদালত পাড়ায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামীর গ্রুপ প্রতিপক্ষ অন্য একটি গ্রুপের ৬ সদস্যকে খেলনা পিস্তলসহ পুলিশ গ্রেফতার করে। পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে অজ্ঞাত পরিচয় সন্ত্রাসীরা ময়লাপোতা মোড়ের আহছানউল্লাহ কলেজের সামনে বিহারী রানাকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি করে। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৬ রাউণ্ড গুলির খোসা উদ্ধার করেছে। পুলিশ আরো জানায়, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, পূর্ব শত্রুতা ও এলাকায় আধিপত্যের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে। নিহত বিহারী রানার বিরুদ্ধে নগরীর সোনাডাঙ্গা ও সদর থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সূত্র জানায়, সোনাডাঙ্গা থানাধীন ময়লাপোতাস্থ আহসানউল্লাহ কলেজের সামনে দূর্বৃত্তদের ছোড়া গুলিতে ২ জন গুলিবিদ্ধ হয়। স্থানীয় লোকজন আহত ২ জনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শেখ সাদেকুর রোহান রানা ওরফে বিহারী রানাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার পিতা শেখ মোহাম্মদ ইসলাম। সে দেবেন বাবু রোড এলাকার বাসিন্দা। নিহত ব্যক্তির পেটে বাম সাইডে, গলার নিচে ও বাম কানের নিচে মোট ৩ টি গুলি লাগে। আহত পলাশের পিতা মহারাজ। তার বাড়ি শের ই বাংলা রোড এলাকায়। তিনি খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তার পায়ে ১ টি গুলি লেগেছে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: BD IT SEBA